৬৭ বছর ধরে গোসল করেননি বিশ্বের সবচেয়ে নোংরা মানুষ

গোসল ছাড়া আপনি কতদিন থাকতে পারবেন? কয়েকদিন পর্যন্ত হয়ত।

কিন্তু বিশ্বে এমনও মানুষ আছেন ছাড়া গোসল ছাড়াই কাটিয়ে দিয়েছেন বছরের পর বছর। তেমনই একজন ব্যক্তি হচ্ছেন আমৌ হাজি। ৬৭ বছর বয়সী এই ব্যক্তি ই’রানের দক্ষিণাঞ্চলীয় দেজগাহ নামের একটি গ্রামের বাসিন্দা।

দীর্ঘদিন ধরে গোসল না করায় হাজিকে দেখে মনে হয় চিমনিতে পড়ে যাওয়া কোনও ব্যক্তি। তার শরীরজুড়ে ধূলা এবং ময়লা। যদি তিনি কোথাও স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন, তাহলে তাকে ভাস্কর্য বলেও মনে হতে পারে।

প্রায় সাত দশক ধরে গোসল করেন না হাজি। কারণ তিনি পানি ভ’য় পান। তার বিশ্বা’স তিনি যদি গোসল করেন, তাহলে তিনি অ’সুস্থ হয়ে পড়বেন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন হলে তিনি উল্টো অ’সুস্থ হয়ে যাবেন। হাজির শুধু গোসল না করেই যে থাকেন তা নয়, তার খাদ্যাভ্যাসও অদ্ভুত।

হাজির পছন্দের খাবার হচ্ছে মৃ’ত প্রা’ণীর পচা মাংস। বিশেষ করে সজারুর মাংস খেতে ভালোবাসেন তিনি। তিনি ধূমপান করতে ভালোবাসেন। তবে সেটি তামাক নয় বরং প্রা’ণী মলকে জং ধ’রা একটি পাইপে ঢুকিয়ে ধূমপান করেন তিনি।

তেহরান টাইমস জানিয়েছে, তরুণ অবস্থায় নিজের আবেগপূর্ণ কিছু অ’ভিজ্ঞতার কারণে একা থাকারই সিদ্ধান্ত নেন হাজি। একা থাকার এই ল’ড়াই চালিয়ে যেতে মা’থায় যু’দ্ধকালীন হেলমেট পড়ে থাকেন হাজি। তবে সেটা অবশ্য যু’দ্ধ করতে নয় বরং শীতকালে নিজেকে গরম রাখতে।

থাকার জন্য একটা জায়গাও খুঁজে পেয়েছেন হাজি। মাটিতে কবরের মতো একটি গর্তে থাকেন তিনি। তবে কিছু লোক তার জন্য ইট দিয়ে উন্মুক্ত একটি ঘর বানিয়ে দিয়েছেন। জং ধ’রা একটি টিনের ক্যানে প্রতিদিন পাঁচ লিটার পানি পান করেন। আবার আ’গুনে পুড়িয়ে চুলে ছাঁটাই করারও অ’ভিনব পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন তিনি।

তবে হাজিই একমাত্র ব্যক্তি নন, যিনি গোসল ছাড়া দীর্ঘদিন কাটিয়ে দিয়েছেন। ভা’রতের বারনাসীর গুরু কৈলাস সিং নামের একজন ব্যক্তিও ১৯৭৪ সাল থেকে গোসল করেন না। গোসল না করলে তিনি ছে’লে সন্তানের বাবা হবেন একজন ধ’র্মগুরুর এমন ভবিষ্যতবাণীর পর থেকেই তিনি গোসল করা বন্ধ করে দেন। তবে গুরুর ছে’লে সন্তান হয়নি বরং তিনি সাত মে’য়ের বাবা হয়েছেন।

Check Also

যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ, বসবাস নিষিদ্ধ!

বছর পনেরো আগের কথা। রোজালিনা লিয়ারপুরা তখন ছোট্ট শিশু। তিন বছর বয়স। বাবাকে সে কখনোই …