স্বামী বিদেশ, বুয়া সেজে অন্যের বাড়িতে চু’রি করেন বিত্তশালী নারী

স্বামী থাকেন সৌদি আরব আর ছে’লে থাকেন দুবাই। আছে বহুতল ভবনও। তবু পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন বুয়ার কাজ। তবে তিনি ছদ্মবেশী কাজের বুয়া। কাজ নেন বিত্তশালীদের বাড়িতে। এরপর সুযোগ বুঝে টাকা-স্বর্ণালংকারসহ নামীদামি জিনিসপত্র নিয়ে দেন চ’ম্পট। অবশেষে ছদ্মবেশী চো’র বিবি কুলসুম পু’লিশের হাতে ধ’রা পড়েছেন।

তার কাছ থেকে চু’রি করা ২০ ভরি স্বর্ণালংকার ও প্রায় পাঁচ লাখ টাকা উ’দ্ধার করা হয়। রোববার রাতে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থা’না এলাকা থেকে তাকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

সিএমপির কোতোয়ালি থা’নার ওসি মোহাম্ম’দ মহসিন বলেন, ছদ্মবেশে বিবি কুলসুম চু’রি করে বেড়ান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অ’ভিন্ন কায়দায় চু’রি করছেন। মাসখানেক আগে নগরীর ঘাটফরহাদ বেগ এলাকায় একটি চু’রির ঘটনা ঘটে। ওই চু’রির সূত্র ধরে কুলসুমকে গ্রে’ফতার করা হয়।

ভুক্তভোগীরা জানান, ছদ্মবেশে বিত্তশালীদের বাড়িতে কাজ নেন কুলসুম। নিজের পরিচয় লুকাতে ছদ্মনাম এবং অন্যের নামে রেজিস্ট্রেশন করা সিম ব্যবহার করেন। নিজের চেহারা আড়াল করতে সব সময় করেন পর্দা। সুযোগ বুঝে অ’ভিন্ন কৌশলে চু’রি করে চ’ম্পট দেন। ৩ নভেম্বর নগরীর ঘাটফরহাদ বেগ এলাকায় চু’রি করেন কুলসুম। এ সময় ৫০ ভরি স্বর্ণ ও দেড় লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যান। পরে প্রযু’ক্তির সহায়তায় তাকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

ওসি বলেন, কুলসুম চু’রির পর এলাকা থেকে পালিয়ে যান। গ্রামের বাড়িতে তার বহুতল ভবন রয়েছে। এলাকায় তার পরিবার বিত্তশালী হিসেবেই পরিচিত। সবাই তাকে দানবীর হিসেবে চেনেন। তার শহরেও বাড়ি রয়েছে। শহরে চু’রির পর গ্রামে পালিয়ে যান। চু’রি করা টাকা ও স্বর্ণালংকার মাটির নিচে পুঁতে রাখেন।

Check Also

বাস স্ট্যান্ডের পাশে পড়েছিল বস্তাভর্তি টাকা

নাটোরের বড়াইগ্রামে বনপাড়া বাজারে পাবনা বাস স্ট্যান্ডের পাশে পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি টাকার বস্তা পাওয়া গেছে। …