স্ত্রী’র রাজনৈতিক দল বদলে স্বামীর ডিভোর্স ঘোষণা

তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন ভা’রতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) এমপি সৌমিত্র খাঁনের স্ত্রী’ সুজাতা মণ্ডল খাঁন। তার পরই সাংবাদিক সম্মেলন করে স্ত্রী’ সুজাতার সঙ্গে স’ম্পর্ক শেষ করার কথা জানান সৌমিত্র।

সোমবার এই ঘটনায় রীতমতো চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয় রাজ্য বিজেপির অন্দরে। গত শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা শুভেন্দু অধিকারী দলের আরও কয়েকজন নেতাকে নিয়ে বিজেপিতে যোগ দেন। তার ‍দুইদিন পর সোমবার সংবাদ সম্মেলন ডাকেন সুজাতা।

তিনি বলেন, গেরুয়া শি’বিরে এখন বিশ্বা’সভাজনদের তুলনায় অযোগ্য ও দু’র্নীতিবাজ নেতারা বেশি গুরুত্ব পাচ্ছেন। আমা’র স্বামীকে লোকসভা নির্বাচনে জেতাতে আমি অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছি….এমনকি আমা’র উপর শারীরিক হা’মলাও হয়েছে…তার বদলে কী’ পেয়েছি, কিচ্ছু না। আমি এখন আমাদের প্রিয় নেতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং আমাদের দাদা অ’ভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে কাজ করতে চাই।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, সুজাতার ওই সংবাদ সম্মেলনের কয়েকঘণ্টা পরই সংবাদ সম্মেলন ডেকে ১০ বছরের বিবাহিত জীবনের ইতি টানার ঘোষণা দেন বিষ্ণুপুরের এমপি ও বেঙ্গল যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খান। এসময় সুজাতাকে নিজের নামের শেষে আর তার পদবী ব্যবহার না করার অনুরোধও করেন তিনি।

তিনি বলেন, তোমাকে এমন কিছু লোক ব্যবহার করছে যারা ২০২৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকা স্বামী-স্ত্রী’র মধ্যে ফাটল ধ’রাতেও দ্বিধা করেনি। হ্যাঁ, তুমিই বিষ্ণুপুর লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের সময় আমা’র স্তম্ভ ছিলে। যা হোক, ভুলে যেও না আমি সেখানে ছয় লাখ ৫৮ হাজারের বেশি ভোট পেয়ে জিতেছি। আমা’র দল এবং ওই এলাকায় আমা’র সুনামের কারণেই এত বড় ব্যবধানে জয় সম্ভব হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে সৌমিত্র আরও বলেন, দয়া করে এরপর নামের শেষে খান পদবী জুড়বে না। দয়া করে কখনও বলবে না তুমি সৌমিত্র খাঁনের স্ত্রী’। আমি তোমাকে তোমা’র নিজের রাজনৈতিক জীবন গড়ার পূর্ণ স্বাধীনতা দিচ্ছি।

Check Also

মমতার বাড়ি নেই, গয়নাও ১ ভরির কম

ভা’রতের রাজনীতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দু’র্নী’তিতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে যখন দেশের অনেক নেতা জর্জ’রিত তখন এক ব্যতিক্রমী …