সু’ন্দরী স্ত্রী’র নিচে চা’পা প’ড়ে প্রা’ণ গে’লো স্বা’মীর!

আরো একটি অদ্ভুত ঘটনার সাক্ষী হল বিশ্ববাসী। যা ডাক্তার থেকে শুরু করে আ’ত্মীয়-স্বজন, কেউ বিশ্বা’স করতে পারছে না। কিন্তু ঘটনা শতভাগ সত্যি! সিঁড়ি দিয়ে ওঠার সময় পা পিছলে স্বামীর গায়ের ওপর পড়ে যান ১২৮ কেজি ওজনের স্ত্রী।

গু’রুতর আ’হত অবস্থায় তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও, দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়।

এ দম্পতি হলেন- নটবরলাল বিথালিনী ও মঞ্জু বিথালিনী। তারা থাকতেন ভারতের রাজকোটের অ’ভিজাত কালাভাড় রোডের রমধাম সোসাইটিতে।
সোমবার ভোরে ছেলে আশিসের শ্বা’সকষ্টের খবর পেয়ে সিঁড়ি দিয়ে হুড়মুড়িয়ে উঠে ছেলের ঘরে যাচ্ছিলেন মঞ্জুলাদেবী। ঠিক আগেই ছিলেন স্বামী নটবরলাল।

সে সময় পা পিছলে ১২৮ কেজির মঞ্জুলা স্বামীর ওপর পড়ে যান। নটবরলালের মাথায় মা’রাত্মক চোট লাগে, আ’হত হন মঞ্জুলাও। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে মস্তিষ্কে র’ক্তক্ষরণের জেরে দুজনেরই মৃ’ত্যু হয়। এই দম্পতির ছেলে আশিসের স্ত্রী নিশা তাদের বাঁচানোর চেষ্টা করলে পিছলে পড়েন তিনিও। পায়ে চোট নিয়ে তিনিও হাসপাতালে ভর্তি।

জানা গেছে, রমধাম সোসাইটির দোতলা বাংলোর একতলায় থাকতেন ওই স্বামী স্ত্রী, দোতলায় ছেলে আশিস ও পুত্রবধূ নিশা। সোমবার ভোর চারটে নাগাদ আশিসের শ্বা’সকষ্ট শুরু হলে নিশা নীচে ওষুধ আনতে যান। তখনই বি’ষয়টি জানতে পারেন তিনি।

Check Also

যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ, বসবাস নিষিদ্ধ!

বছর পনেরো আগের কথা। রোজালিনা লিয়ারপুরা তখন ছোট্ট শিশু। তিন বছর বয়স। বাবাকে সে কখনোই …