শুরুতেই হোঁচট খেল দেব!

টলিউড সুপারস্টার দেব। ওপার বাংলার সিনেমায় অ’ভিনয় করে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে তিনি। দেবের পুরো নাম দীপক অধিকারী। ডাক নাম রাজু। ২০০৬ সালে বড়পর্দায় অ’ভিষেক ঘটে দেবের। প্রবীর নন্দী পরিচালিত ‘অ’গ্নি শপথ’ সিনেমায় রচনা ব্যানার্জির বিপরীতে দেখা যায় তাকে।

এরপর দেব অ’ভিনয় করেছেন অর্ধশতাধিক বাংলা সিনেমায়। ‘চিরদিনই তুমি যে আমা’র’, ‘চ্যালেঞ্জ’, ‘পরান যায় জ্বলিয়া রে’, ‘দুই পৃথিবী’, ‘পাগলু’, ‘রোমিও’, ‘খোকাবাবু’ ইত্যাদি সিনেমায় অ’ভিনয় করে সুপারস্টার তকমা পেয়েছেন দেব। ব্যবসা সফল এ সিনেমাগুলো ঘুরিয়ে দিয়েছে দেবের ক্যারিয়ার।

পশ্চিমবঙ্গের প্রথম সারির সব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করার পর দেব এবার নিজেই প্রযোজক বনে গেছেন। প্রতিষ্ঠা করেছেন দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার্স। নির্মাণ করেছেন সাতটি সিনেমা।

বাংলাদেশের সিনেমায় কাজের ইচ্ছা ছিল দেবের। ২০১৯ সালে নভেম্বর তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশে আসেন তিনি। ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমা’র মুক্তি উপলক্ষে এসেছিলেন সেবার। ঢাকা ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে ঘোষণা করা হয়, শাপলা মিডিয়ার নতুন সিনেমায় অ’ভিনয় করবেন দেব। সিনেমা’র নাম জানানো হয় ‘মিশন সিক্সটিন’। সে সময় ক্যাসিনো কা’ন্ডে নড়বড়ে ছিল ফিল্ম পাড়ার অবস্থা। ফলে শ’ঙ্কা দেখা দিয়েছিল দেবের বাংলাদেশ অ’ভিষেক নিয়ে।

এক বছর সময় নিয়ে শেষ হয়েছে দেবের সেই সিনেমা’র কাজ। নাম বদলে রাখা হয়ে ‘কমান্ডো’। পরিচালনা করেছেন শামীম আহমেদ রনী। কলকাতায় সেট ফেলে সম্পন্ন হয়েছে সিনেমা’র চিত্রায়ণ। ২৫ ডিসেম্বর সুপারস্টারের জন্ম’দিন উপলক্ষে দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার্সের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়েছিল সিনেমা’র টিজার।

প্রকাশের পর আলোচনা শুরু হয় ‘কমান্ডো’ সিনেমাকে নিয়ে। নেট দুনিয়ায় তুমুল বিতর্ক তৈরি করে সিনেমাটি। অ’ভিযোগ তোলা হয়- ইস’লাম ধ’র্ম অবমাননার। তবে পরিচালক, প্রযোজকের পক্ষ থেকে বিষয়টিকে ভুল বোঝা হয়েছে বলে জানানো হয়। তবুও থামছিল না বিতর্ক। বাধ্য হয়ে ২৮ ডিসেম্বর রাতে ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে টিজারটি। সরানোর আগে টিজারটিতে ১৭ হাজার লাইক এবং ১৪ হাজার ডিসলাইক দেখা গিয়েছিল।

প্রযোজনা সংস্থা শাপলা মিডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়, সম্পাদনা করে নতুনভাবে টিজার প্রকাশ করবেন না। এদিকে, খোঁজ নিয়ে জানা গেছে বাংলাদেশের প্রথম সিনেমা নিয়ে আশাবাদী ছিলেন দেব। শুরুতেই হোঁচট খাবেন তিনি সেটি ভাবতে পারেননি। ফলে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে এ নায়কের কপালেও। শুরুতে দেবের হোঁচট খাওয়া নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে ফিল্মপাড়াতেও। কেউ কেউ বলছেন, হাইপ তোলার জন্য এমন টিজার তৈরি করেছে ‘কমান্ডো’ টিম। আবার কেউ মনে করছেন এ সিনেমায় এমন দৃশ্য থাকলে আ’ট’কে যাবে সেন্সরে।

বাংলাদেশের আ’লোচিত সিরিজ বো’মা হা’মলার ঘটনা থেকে অনুপ্রা’ণিত হয়ে এ সিনেমা’র গল্প তৈরি করা হয়েছে। এমনটাই জানা গেছে বিশ্বস্ত সূত্রে। এদিকে, সিনেমা’র পুরো কাজ এখনও শেষ হয়নি। ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে। বাকি অংশের কাজ বাংলাদেশে হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু ভিসা জটিলতায় এপারে আসতে পারছেন না দেব। ফলে বাধ্য হয়ে সময় বাড়ছে।

২০২১ সালে ঈদুল আজহার মুক্তি কথা রয়েছে ‘কমান্ডো’ সিনেমাটির। তার আগে পুরো সিনেমা’র কাজ শেষ করে সেন্সরে জমা দিতে হবে। প্রিভিউ কমিটি ছাড়পত্র দিলেই পর্দায় দেখা মিলবে দেব এবং তার সহযোগিদের। কিন্তু যদি আ’ট’কে যায় তাহলে কাঙ্খিত অ’ভিষেক হবে না দেবের। তবে বিদেশি এ অ’ভিনেতার বাংলাদেশ অ’ভিষেক কেমন হবে সেটি জানতে হলে আলোচক-সমালোচক এবং দেব ভক্তদের অ’পেক্ষা করতে হবে আরও কিছুদিন।

Check Also

ইশ! আজ যদি মা বেঁচে থাকতেন: দীঘি

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা দীঘি। আলোচনা- সমালোচনা নিয়েই তার ক্যারিয়ার। বরাবরই তিনি আলোচনায় থাকেন। ফের …