মিষ্টি ইমেজ ভাঙতেই খোলামেলা ছবি পোস্ট করি: মধুমিতা

ভা’রতীয় টেলিভিশন অ’ভিনেত্রী মধুমিতা সরকার। স্টার জলসায় প্রচারিত ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ ধারাবাহিকে ‘পাখি’ চরিত্রে অ’ভিনয় করে তুমুল দর্শকপ্রিয়তা লাভ করেন। বাংলাদেশেও তার ভক্ত সংখ্যা কম নয়! গত বছর অ’ভিনেতা সৌরভের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পর থেকেই আলোচনায় রয়েছেন মধুমিতা।

মিষ্টি মে’য়ের খোলস ছাড়িয়ে বোল্ড অবতারে অভ্যস্ত হওয়ার চেষ্টা করছেন মধুমিতা। সাহসী পোশাকে তোলা ছবি নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে থাকেন তিনি। এ বিষয়ে মধুমিতা সরকার ভা’রতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে বলেন—‘পাখি’-এর ইমেজ ভাঙতে সময় লেগেছে। ক্যারিয়ারের গোড়ার দিকেই মিষ্টি ইমেজটা ভাঙতে চাই। তাই নানা ধরনের (খোলামেলা) ছবি পোস্ট করি। কমেন্টস নিয়ে আমা’র মা’থাব্যথা নেই। কোনো কমেন্ট পড়িও না।

নিজেকে হঠাৎ বদলে ফেলার পেছনে বিবাহবিচ্ছেদ দারুণ প্রভাব ফেলেছে। বিষয়টি স্ম’রণ করে মধুমিতা সরকার বলেন—জীবনে এত বড় অ’ভিজ্ঞতার মুখোমুখি না হলে হয়তো আমা’র মধ্যে কাজ করার আ’গুনটা জ্বলে উঠত না। যেকোনো মানুষকে পরিণত করে তোলে তার জীবনে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা। আমা’র জীবনেও হয়তো তার দরকার ছিল। যে সময়টা নষ্ট করেছি, তা আমাকে পরিণত করেছে।

মধুমিতার বিবাহবিচ্ছেদের কারণ তার মা বলে গুঞ্জন শোনা যায়। কিন্তু এ তথ্য সত্য নয় বলে দাবি করেছেন মধুমিতা। ব্যাখ্যা করে এ অ’ভিনেত্রী বলেন—মায়ের সঙ্গে আমা’র যত বন্ধুত্ব, ততটাই ঝগড়া। আমা’র যতটা না ইগো, মায়ের তার চেয়েও বেশি। মা আমাকে বেশি আ’ঘাত করে কথা বলে। তারপর দু’জনেই ভুল বুঝে ‘সরি’ বলি। কিন্তু আমা’র আর সৌরভের (চক্রবর্তী) মধ্যে মা কখনো আসেনি। এটা ছিল আমাদের দু’জনের সিদ্ধান্ত।

ভালোবেসে অ’ভিনেতা সৌরভের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন মধুমিতা। গত বছর তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে। বিয়ে বিচ্ছেদের পর থেকে নানাজনের সঙ্গে নাম জড়িয়েছে তার। কিন্তু মধুমিতার দাবি—আমি সিঙ্গেল। কাজ ছাড়া অন্য কোনো স’ম্পর্ক থেকে এখন অনেক দূরে। এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পেছনে খানিকটা হলেও আমা’র সঙ্গে হওয়া বিশ্বা’সঘা’তকতা দায়ী।

Check Also

ইশ! আজ যদি মা বেঁচে থাকতেন: দীঘি

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা দীঘি। আলোচনা- সমালোচনা নিয়েই তার ক্যারিয়ার। বরাবরই তিনি আলোচনায় থাকেন। ফের …