মাত্র পাঁচ মিনিটেই মুখের রঙ ফর্সা, পথেই লাগিয়ে দেয়া হচ্ছে ক্রিম

আজ দুপুর সাড়ে ১২টা দিকে রাজশাহী নগরের রেলগেট এলাকায় একদল মানুষের জটলা। একজন হ্যান্ডমাইকে লোকজন ডাকছেন।

দুইজন পথচারীদের মুখে ক্রিম লাগিয়ে দিচ্ছেন। আর একজন ক্রিমের গুণাগুণ বর্ণনা করে পথচারীদের কাছে বিক্রি করছেন। বিক্রির সময় চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলা হচ্ছে— মাত্র পাঁচ মিনিটেই মুখের রঙ ফর্সা করে তুলবে এই ক্রিম।

এদিকে যে ক্রিম বিক্রি করা হচ্ছিল সেটির নাম ‘হেনো মেসতা আউট স্কিন ক্রিম’। উৎপাদনকারী কোম্পানির নাম- আমিন হারবাল কোম্পানি লিমিটেড। প্রচারকর্মীরা পথচারীদের মুখে ক্রিম লাগিয়ে দেয়ার সময় বলছিলেন— পাঁচ মিনিটের মধ্যেই মুখের রঙের পরিবর্তন দেখা যাবে। তবে তখনই এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিক্রয়কর্মীরা এই প্রতিবেদকের কাছে বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন।

সেই ক্রিমের প্যাকেটের এক স্থানে লেখা রয়েছে ‘পরামর্শক ডা. এন আমিন’। তার মোবাইল নম্বরও দেয়া আছে প্যাকেটে। সেই নম্বরে যোগাযোগ করা হলে ডা. এন আমিন বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার রাজশাহীতে চারজন মিলে এই পণ্য বিক্রির সময় আকাশ শেখ নামে একজন হ্যান্ডমাইকে বলছিলেন, ‘পাঁচ মিনিটেই রঙ ফর্সা। থাকবে না ব্রণ, মেসতা, কাল দাগ। এটি কোনো জাদু নয়। এখানেই পাওয়া যাচ্ছে, একবার ব্যবহার করে দেখুন। কিনে নিতে হবে না, টাকা-পয়সা দিতে হবে না। পুরো মুখে লাগাবেন, কোনো ক্ষতি নেই। গ্যারান্টি সহকারে ব্যবহার করুন, হানড্রেড পার্সেন্ট উপকার। কোম্পানির অ্যাড করা হচ্ছে। আপনারা নিজের চোখে দেখবেন, প্রমাণ করবেন।’

সিদ্দিকুর রহমান নামে এক ব্যক্তি পথচারীদের মুখে মুখে লাগিয়ে দিচ্ছিলেন ক্রিম। পাঁচ মিনিটেই রং ফর্সা করার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা আসলে সে রকম না। এটা ব্রণ, মেসতা, কালো দাগ দূর করার জন্য। সঙ্গে সঙ্গে না, এটা নিয়মিত ব্যবহার করতে হবে। তাহলে উপকার পাওয়া যাবে। ৮০ গ্রাম ওজনের একটি ক্রিমের দাম ১৮০ টাকা। পথচারীদের আমরা দেখিয়ে দিচ্ছি, কীভাবে ব্যবহার করতে হবে। রাতে একবার ব্যবহার করতে হবে।’

বিক্রয়কর্মীরা শাহিন আলী নামে এক পথচারীর মুখে ক্রিম লাগিয়ে দিয়েছিলেন। শাহিন বলেন, আমাকে তারা বলল যে এখানেই পার্থক্য বুঝতে পারবেন। একটু মাখেন। তারা মুখে লাগিয়ে দিল। আয়না না থাকার কারণে তো বুঝতে পারছি না ক্রিম লাগানোর আগে-পরে কি পার্থক্য।

আমিন হারবাল কোম্পানি লিমিটেডের স্বত্বাধিকারী ডা. এন আমিন বলেন, পাঁচ মিনিটেই রঙ ফর্সা হয় নাকি! একজন সচেতন মানুষ হিসেবে এটা মনে করেন?

বিক্রয়কর্মীরা কেনো এমন আশ্বাস দিচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা তো আমি বলতে পারব না। তারা কেনো বলছে। আপনি তাদেরকেই জিজ্ঞেস করুন।

এ সময় ডা. আমিন বলেন, তার ক্রিমে ব্রণ, মেসতা ও কাল দাগ দূর হবে। ফর্সা হবে মুখের রঙ। তবে ফর্সা হতে সময় লাগবে। কিন্তু কতদিন সময় তা তিনি জানেন না।

Check Also

ধেয়ে আসছে বিশালাকার গ্রহাণু

একটি বিশালাকার গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, এটি পৃথিবীর …