ম’সজিদে মু’সল্লিদের জুতা সাজিয়ে রেখেই প্রশান্তি পান এক অমু’সলিম!

শুক্রবার শুধু মু’সল্লিদের জুতা সোজা করে সাজিয়ে রাখায় আনন্দ পায় অমু’সলিম এ যুবক……

আল-মা’ওয়াদ্দাহ ম’সজিদ, সিঙ্গাপুর। প্রতি শুক্রবার এ ম’সজিদে ব্যতিক্রমধ’র্মী কাজে নিয়োজিত এক অমু’সলিম যুবকের দেখা মেলে। প্রচণ্ড গরমেও ম’সজিদের বাইরে বসে মু’সল্লিদের জুতাগুলো সোজা করে সারি সারিভাবে সাজিয়ে রেখে প্রশান্তি লাভ করে।

অ্যাংকল স্টিভেন। সে অমু’সলিম। শুক্রবার শুধু মু’সল্লিদের জুতা সোজা করে সাজিয়ে রাখায় আনন্দ পায় সে। এ আনন্দ অনুভূতি থেকেই প্রতি শুক্রবার সিঙ্গাপুরের আল-মা’ওয়াদ্দাহ ম’সজিদের সামনে চলে আসে।

ইম’রান মু’স্তাফা নামের এক স্কুল শিক্ষক মু’সল্লি তার ফেসবুকওয়ালে তুলে ধরে এ ঘটনা। যা খবর আকারে প্রকাশ করেছে ইলমফিড.কম।

ফেসবুকে ইরফান মু’স্তাফা জানান, ‘মু’সল্লিরা ম’সজিদে এসে যখন প্রচণ্ড সূর্যের তাপে বাইরে অবস্থান করতে পারে না। ম’সজিদের ভেতরে এসিতে নামাজ আদায় করে তখন অ্যাংকল স্টিভেন প্রচণ্ড গরমের মধ্যেই মু’সল্লিদের জুতা সারি সারি করে সাজিয়ে রাখতে ব্যস্ত সময় পার করে।

অ্যাংকল স্টিভেন জানায়, ম’সজিদের বাইরে জুতাগুলো সারি সারি সাজিয়ে রাখলে সুন্দর দেখা যায়। আমি ম’সজিদের কাছাকাছিই থাকি এবং প্রতি শুক্রবার আসার চেষ্টা করি।

এ কাজটি আমি কেন করি, তা আমা’র জানা নেই তবে সারি সারি সাজানো জুতাগুলো দেখতে আমা’র ভালো লাগে। আর ম’সজিদে এসে এ কাজ করে আমি প্রশান্তি লাভ করি।

অ্যাকংল স্টিভেন অনুপ্রেরণাদানকারী সমাজ সচেতন মানুষ। সাজানো-গোছানো ও সুন্দর পরিপাটি যে কোনো জিনিস দেখতে কার না ভালো লাগে? ভালো কাজ করতে চাইলে যে কোনো সময় যে কোনো জায়গা থেকেই করা যায়। প্রয়োজন শুধু একটি ইতিবাচক মানসিকতার।

অমু’সলিম হয়েও অ্যাংকল স্টিভেন মু’সলিম’দের অগোছালো জুতাগুলো সারি সারি সাজিয়ে রেখে সেই ইতিবাচক মানসিকতা পরিচয় ও অনুপ্রেরণা তুলে ধরেছেন। শুভ কামনা অ্যাংকল স্টিভেনের প্রতি…

Check Also

ধেয়ে আসছে বিশালাকার গ্রহাণু

একটি বিশালাকার গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, এটি পৃথিবীর …