মরা গরুর মাংস বিক্রি করতে গিয়ে কারাগারে কসাই

রাজশাহীর বাগমারায় মরা গরুর মাংস বিক্রির দায়ে এক কসাইকে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত ওই কসাইয়ের নাম খোরশেদ আলম। তিনি বাগমারা উপজেলার কহিতপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, শুক্রবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার কহিতপাড়া গ্রামের খোরশেদ আলম নামের একজন কসাই রুগ্ন একটি গরু কিনে বাঘাবাড়ি বাজারে আনেন। রাতের কোনো এক সময়ে গরুটি মারা যায়। বিষয়টি ওই বাজারের পাহারাদার লোকমান আলী ও মকলেছুর রহমান জানতে পারেন। বিষয়টি জানার পর তাদের মরা গরুটি জবাই ও সেই গরুর মাংস বিক্রয়ে বাধা দেন। তারপরও তারা ভোর রাতে মরা গরুটি জবাই করেন।

পরদিন শনিবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে ওই কসাই বাজারে মাংস বিক্রি শুরু করেন। বাজারের পাহারাদাররা বিষয়টি বাজার কমিটির সদস্যদের জানান। তারা ঘটনাস্থলে এসে তাদের মাংস বিক্রিতে বাধা দেন এবং কসাইকে গরুর বিষয়ে জেরা করেন। বাজার কমিটির জিজ্ঞাসাবাদে কসাই মরা গরু জবাই করে মাংস বিক্রির কথা স্বীকার করেন।

পরবর্তীতে স্থানীয়রা খোরশেদকে আটকে রেখে উপজেলা প্রশাসনকে বিষয়টি জানান। দুপুরের দিকে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাহমুদুল হাসান ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তিনি স্থানীয়দের কাছে ঘটনা সর্ম্পকে অবহিত হওয়ার পর কসাই খোরশেদ আলমকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

মরা গরু জবাই ও মাংস বিক্রির অভিযোগ স্বীকার করেন ওই কসাই। এতে ভ্রাম্যমান আদালতের আওতায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল হাসান কসাইকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

Check Also

প্রথম সন্তান কন্যা হওয়ায় গৃহবধূকে তাড়িয়ে দিলো স্বামীর পরিবার

এক বছরের সংসার জীবনে ছেলে সন্তান উপহার দিতে পারেনি। তাই গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে রোকসানা খাতুন (২৩) …