ভু,য়া নাম ঠিকানা ব্যবহার করে কোচিং সেন্টারে নিয়ে কাজী এনে বিয়ে করেন!

ভুয়া নাম ঠিকানা ব্যবহার করে বিয়ে সম্পন্ন করায় নুরুল আমীন খান নামে এক কাজি ও স্বামীর বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগ ক’রেছেন এক গৃহবধূ।
কাজি নুরুল আমীন খান কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজে’লার চিথলিয়া ইউপির বাসিন্দা।

গৃহবধূ জা’নান, আবু আ’সলাম কুষ্টিয়া পলিটেকনিক কলেজে পড়াশোনা করার সময় তার স’ঙ্গে প্রেমের স’স্পর্ক গড়ে ওঠে। গত বছর ২১ শে জুন পোড়াদহ একটি কোচিং সেন্টারে নিয়ে কাজী এনে বিয়ে করেন। বিয়েতে আবু আ’সলামের ব’ন্ধু নিরব হোসেন, জুনাইদ ইভান, সামসুল আলম ও আবুল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। পরে জানতে পারেন কাজিকে টাকা দিয়ে উপস্থিত সবার ভুয়া নাম ব্যবহার করে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন আ’সলাম। ওই কাজির স’ঙ্গে জোগসাজসে বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর ওপর নি’র্যাতন করেন স্বামী আবু আ’সলাম। কাবিননামা তোলার পর বিষয়টি জানতে পারেন।

চাকরি পেয়ে স্ত্রীকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে দীর্ঘদিন ধ’রে গৃহবধূর বাবার বাড়ি কুষ্টিয়ার আড়ুয়াপাড়া এলাকায় বসবাস করেন মেহেরপুর জে’লার গাংনী ঈদগাহ পাড়া এলাকার আ. আহাদের ছেলে আবু আ’সলাম।

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ জা’নান, গত এক মাস ধ’রে তার স’ঙ্গে যোগাযোগ ব’ন্ধ করে দেয় আ’সলাম। গতকাল সোমবার আ’সলামের বাড়িতে গেলে বিয়ের বিষয়টি তিনি অস্বী’কার করেন। তাকে মা’রধ’র করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। এ ঘ’টনায় কুষ্টিয়া মডেল থা’নায় একটি লিখিত অ’ভিযোগ দা’য়ের করা হয়েছে।

আবু আ’সলামের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ওই মেয়েকে চিনি না। সে আমা’র বাড়িতে এসেছিল এলাকার কাউন্সিলর সব সমাধান করে দিয়েছেন। এর বেশি কিছু বলতে পারবো না।

গাংনী থা’নার ওসি ওবায়দুল রহমান বলেন, গাংনী পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিসের অফিস থেকে মেয়েটিকে উ’দ্ধার করে তার আত্মীয়দের স’ঙ্গে বাড়ি পাঠিয়েছি।

নুরুল আমীন খান কাজী কোনো অনিয়মের স’ঙ্গে সম্পৃক্ত না বলে তিনি ফোনটি কে’টে দেন।

Check Also

তরুণীকে তুলে নিয়ে মৃত প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে!

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানে এক তরুণীকে জোর করে তুলে নিয়ে সিঁদুর পরিয়ে মৃ’ত প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে …