বোনের বাড়িতে গিয়ে হারিয়ে যাওয়া মেয়েকে ১৮ বছর পর ফেসবুকে খুঁজে পেলেন বাবা

তানিয়া আক্তার ঢাকা থেকে নি’খোঁজ হন প্রায় ১৮ বছর আগে। এরপর থেকে পরিবারের সদস্যরা তাকে কোথাও খুঁজে পাচ্ছিলেন না।

আদরের মেয়েকে হারিয়ে ফেলার য’ন্ত্র’ণা বয়ে বে’ড়াচ্ছিলেন বাবা সুন্দর আলী সিকদার। অবশেষ সামাজিক যোগাযোগ-মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে স’ন্ধা’ন মিলেছে তানিয়ার।

রোববার (১০ জানুয়ারি) পরিবারকে ফিরে পেয়েছে গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার এই তরুণী। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার শান্তিনগর এলাকায় বসবাস করা মেয়ে তানিয়াকে নিতে আসেন বাবা সুন্দর আলী সিকদারসহ পরিবারের সদস্যরা।

সুন্দর আলী সিকদার জানান, প্রায় ১৮ বছর আগে তানিয়াকে নিয়ে ঢাকায় বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান। তখন তানিয়ার বয়স ছিল ৬ বছর। তাকে ঢাকায় রেখে গ্রামের বাড়ি চলে যান সুন্দর আলী।

পরে জানতে পারেন, বাবার পিছু পিছু তানিয়াও সেদিন বাসা থেকে বেরিয়ে যান। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তানিয়ার আর কোনো স’ন্ধা’ন পাওয়া যায়নি।

এ নিয়ে পত্রিকায় নি’খোঁ’জ বিজ্ঞপ্তিও ছা’পানো হয়। কিছুদিন আগে ফেসবুকে তানিয়ার ছবিসহ হারিয়ে যাওয়ার সংবাদ দেখে তানিয়ার খোঁজ পায় পরিবার। তানিয়া আক্তার বলেন, বাবাকে হা’রিয়ে ফেলার পর রিপন বাবা আমাকে লালন পালন করেছেন। আমি পরিবারকে খুঁজে পেতে অনেক চেষ্টা করেও পাইনি।

এখন পরিবারকে ফিরে পেয়ে আমি খুবই আনন্দিত। সুন্দর আলী সিকদার বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার রাইতলা গ্রামের রিপন মিয়া আমার মেয়েকে লালন-পালন করেছেন এবং ভালো পাত্র দেখে বিয়ে দিয়েছেন। বাবা হিসেবে আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞ।

Check Also

যে কারণে ইমামের সঙ্গে প;রকীয়া করেন আসমা!

ঢাকার দক্ষিণখানের সরদারবাড়ি জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আবদুর রহমানের (৫৪) সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন নিহত আজহারের …