বাংলাদেশি পুরুষদের ‘রাতের ঘুম হারাম করতো’ ভয়ংকর এ অস্ট্রেলিয়ান তরুণী

নিজের মাকে ২০০ বার কুপিয়ে হত্যা করেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনির তরুণী জেসিকা ক্যামিলারি। এ ঘটনা আদালতে পর্যবেক্ষণের পর বেরিয়ে আসে আরো নানা ভয়াবহ তথ্য। তিনি বিভিন্ন সময় বাংলাদেশি পুরুষদের উত্ত্যক্তকারী করতেন।
রোববার আদালতের পর্যবেক্ষণের বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যম নিউজ.কম.এইউ। তাদের খবরে উঠে আসে ভয়ংকর এই অস্ট্রেলিয়ান তরুণীর গল্প।

নিউজ.কম.এইউ-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দিন-রাত ভৌতিক সিনেমায় মজে থাকতেন জেসিকা। নারী দেখলেই তিনি উত্যক্ত করতেন। অপরিচিত পুরুষদের ফোন নম্বর জোগাড় করে বিরক্ত করতেন। এ তরুণী দিনে ১০০ বারের বেশি তার প্রতিবেশী ‘অসংখ্য বাংলাদেশিকে’ ফোন করতেন। এতে বিরক্তবোধ করতেন বাংলাদেশি পুরুষরা।

জেসিকা ক্যামিলারি নামের ওই ২৫ বছর বয়সী তরুণী অসংখ্য বাংলাদেশি পরিবারকে প্রতিদিন ফোন করতেন। এই মানুষদের ফোন নম্বর নাকি তার খুব পছন্দ ছিল! রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা জেসিকার পাশাপাশি তার পরিবার, বন্ধু এবং প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জোগাড় করেছেন।

গত বছর ২০ জুলাই জেসিকা তার মা রিতা ক্যামিলারিকে রাতে হত্যা করে। পুলিশ বাড়িতে গিয়ে জেসিকার সারা শরীরে রক্তমাখা দেখতে পায়। সেদিন তিনি পুলিশকে বলেন, ‘মায়ের মাথা কংক্রিটের ওপর রাখা আছে।’

জেসিকা একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞকে বলেছিলেন, তার জঘন্য কাজটি হিংসাত্মক ভৌতিক চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অনুপ্রাণিত হয়েছিল। এটাই তার পছন্দের কাজ ছিল।

ক্যামিলারি হত্যার জন্য জেসিকাকে দোষী সাব্যস্ত করেননি আদালত। তাকে নরহত্যার দায় দেয়া হয়েছে। জেসিকার বিরুদ্ধে এখনো কোনো রায় দেয়নি আদালত। সামনের বছর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

Check Also

মমতার বাড়ি নেই, গয়নাও ১ ভরির কম

ভা’রতের রাজনীতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দু’র্নী’তিতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে যখন দেশের অনেক নেতা জর্জ’রিত তখন এক ব্যতিক্রমী …