ফিলি’স্তিনে নবী মু’সা ম’সজিদে ডিজে পার্টি, গ্রে’প্তার ৪

ফিলি’স্তিনের অব’রুদ্ধ পশ্চিম তীরে অবস্থিত ‘নবী মু’সা ম’সজিদে’ একটি নাচের অনুষ্ঠান নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে। গত শনিবার রাতে ওই ম’সজিদটিতে ড্যান্স পার্টির আয়োজন করে কয়েকজন তরুণ-তরুণী। এতে ডিজে পার্টির পাশাপাশি ম’দপানও করে তারা। খবর টাইমস অব ইস’রাইল ও হারেৎসের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এ ঘটনার ভিডিও ভাই’রাল হলে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন ফিলি’স্তিনিরা। ড্যান্স পার্টির আয়োজকরাই এর একটি ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে।

এতে দেখা যায়, কয়েকজন তরুণ-তরুণী ‘নবী মু’সা ম’সজিদের’ ভেতরে উচু আওয়াজে পশ্চিমা সংগীতের সুরে গাইছে ও নাচছে৷ এর মধ্যেই পরিবেশন করা হচ্ছে ম’দ।

ওই অনুষ্ঠানটি পরিচালনাকারী ডিস্ক জাকি, (ডিজে) সামা, আল-হাদী এবং আবদ আল-হাদী নামক চারজনকে গত রবিবার রাতেই গ্রে’ফতার করে ফিলি’স্তিনি পু’লিশ। ইস’লামিক বিধান অনুযায়ী ফিলি’স্তিনে ম’দপান নিষিদ্ধ রয়েছে। এছাড়া প্রকাশ্যে একসঙ্গে নারী-পুরুষের নাচের ব্যাপারেও কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এসবের তোয়াক্কা না করে কী’ভাবে ম’সজিদের ভেতর এমন নাচের অনুষ্ঠান হল- এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে ফিলি’স্তিনে। দেশটির সচেতন নাগরিকরা ন্যাক্কারজনক এ ঘটনার সর্বোচ্চ বিচার দাবি করছেন তবে অ’ভিযু’ক্তরা দাবি করেছেন, ফিলি’স্তিনের পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকে তারা অনুমতি নিয়েছিলেন।

এদিকে পিএ সরকারের মুখপাত্র ইব্রাহিম মিলহেম বলেছেন, ঘটনাটি খতিয়ে দেখার জন্য প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই একটি ত’দন্ত কমিটি গঠন করেছেন। ম’সজিদটিতে আসলে কী’ ঘটেছে, তা বের করে অ’প’রাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তি দেয়া হবে।

ফিলি’স্তিনের বিচারপতি মাহমুদ আল-হাবাশ বলেছেন, আমি হ’জরত মু’সা ম’সজিদের সম্মান ও পবিত্রতা লঙ্ঘনের অ’প’রাধের বিষয়টি নিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল অধ্যাপক আকরাম আল-খতিবের সঙ্গে কথা বলেছি। এতে জড়িত প্রমাণিত হলে সবারই শা’স্তি পেতে হবে।

Check Also

মমতার বাড়ি নেই, গয়নাও ১ ভরির কম

ভা’রতের রাজনীতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দু’র্নী’তিতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে যখন দেশের অনেক নেতা জর্জ’রিত তখন এক ব্যতিক্রমী …