প্রেমিকার সঙ্গে ফোনালাপের পর ‘উত্তেজিত হয়ে’ মৃত তরুণীদের ধর্ষণ করত মুন্না

সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী ডোম মুন্না ভগত মৃতদেহের সঙ্গে বিকৃত যৌনাচার ও ধর্ষণের দায় স্বীকার জবানবন্দি দিয়েছে।

রবিবার (৩১ জানুয়ারি) ঢাকা মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়ার আদালতে স্বেচ্ছায় দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয় সে।

এ ব্যাপারে তেজগাঁও থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা আফসানা আক্তার তিনি বলেন, রিমান্ড শেষে মুন্নাকে শনিবার (৩০ জানুয়ারি) ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তার জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন।

বিচারক তা রেকর্ড করার আদেশ দেন। এরপর রবিবার বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে মুন্নার কুকীর্তির নাটকীয় সব ঘটনা আবিস্কার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

সিআইডি সূত্রে জানা গেছে, ডোম রজত কুমার লালের ভাগনে মুন্না ভগত। তিনি মামার সঙ্গেই ওই হাসপাতালের মর্গে সহযোগী হিসেবে কাজ করত। দুই-তিন বছর ধরে মুন্না মর্গে থাকা মৃত নারীদের ধর্ষণ করে আসছিল। এ অভিযোগের সত্যতা পেয়ে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) তাকে আটক করে সিআইডি।

Check Also

যে কারণে ইমামের সঙ্গে প;রকীয়া করেন আসমা!

ঢাকার দক্ষিণখানের সরদারবাড়ি জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আবদুর রহমানের (৫৪) সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছিলেন নিহত আজহারের …