পেঁয়াজে এত রোগ সারে জানতেন কি ? জেনে নিন, এতে আপনার ডাক্তারের খরচ অনেকটা কমবে

পেঁয়াজে প্রচুর পরিমাণ সালফার থাকে। চিকিৎসকদের মতে এর অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিফাংগাল গুণ সাধারণ সর্দি, কাশি থেকে হার্টের সমস্যাও দূর করতে পারে। যাদের কাঁচা পেঁয়াজ খেতে ভালো না লাগে তারাও এর উপকার থেকে বঞ্চিত হবেন না। জেনে নিন না খেয়েও কীভাবে বিভিন্ন সমস্যায় ব্যবহার করতে পারবেন কাঁচা পেঁয়াজ।

বুকে ইনফেকশন :

পেঁয়াজ কুচিয়ে নিয়ে ১-২ টেবিল চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই পেস্ট বুকে লাগিয়ে তোয়ালে জড়িয়ে রাখুন। ইনফেকশন কমে যাবে।

কাটা-ছেঁড়া :

পাতলা করে পেঁয়াজের সাদা ফিল্ম কে’টে নিয়ে কাটার ওপর লাগিয়ে গজ দিয়ে বেঁধে রাখুন। র’ক্ত পড়া সঙ্গে সঙ্গে ব’ন্ধ হয়ে যাবে।

জ্বর :

জ্বর কিছুতেই কমছে না ? পায়ের তলায় নারকেল তেল মালিশ করে পেঁয়াজের স্লাইস রেখে মোজা পরে থাকুন। জ্বর কমে যাবে।

কাশি :

পেঁয়াজ অর্ধেক করে কে’টে নিন। দুটো আধা ভাগের ওপর এক টেবল চামচ করে ব্রাউন সুগার দিয়ে এক ঘণ্টা রেখে দিন। দিনে দু’বার করে খেলে কাশি কমে যাবে।

কানের ব্যথা :

পেঁয়াজ কুচিয়ে পাতলা কাপড়ে বেঁ’ধে নিন। ব্য’থা কানের কাছে কাপড় বেঁধে’ রাখুন।

শিশুদের পেটের সম’স্যা :

হলুদ পেঁয়াজ ডুমো করে কে’টে জলে ফুটিয়ে অনিয়ন টি বানিয়ে নিন। শিশুদের এই চা খাওয়ালে সম’স্যা ঠিক হয়ে যাবে।

বমি :

বার বার বমি হচ্ছে ? পেঁয়াজ বেটে রস তৈরি করে নিন। সঙ্গে বানিয়ে রাখুন পেপারমিন্ট টি। দু’চা চামচ পেঁয়াজের রস খেয়ে পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করুন। এ বার দু’চা চামচ পেপারমিন্ট টি খান। এভাবে এক বার পেঁয়াজের রস, এক বার চা ১৫ মিনিট ধরে খেলে বমি কমে যাবে।

Check Also

জ্বালাপোড়া থেকে মুক্তির পেতে কার্যকরী সমাধান

যদি শরীরের কোথাও জ্বালাপোড়া করে তাহলে কতটা অস্বস্তি লাগে তা আমরা সকলেই জানি। শরীরে জ্বালাপোড়া …