ত্বকের চামড়া শ’ক্ত হয়ে ‘কড়া’ পড়েছে? জা’নুন দূর করার উপায়

অনেকেই কড়ার স’মস্যা দূ’র করা নিয়ে দু’শ্চিন্তাগ্রস্থ থাকেন। এই স’মস্যার কারণে ত্বকের স্তর পুরু হয়ে কালো দাগ হয়ে থাকে। কনুই, পায়ের গিঁট বা গোড়ালির চামড়া মোটা ও শক্ত হয়ে যাওয়াকে প্রচলিত ভাষায় বলা হয় ‘কড়া পড়া’। এই স’মস্যা গু’রুতর না হলেও অস্ব’স্তি কর। যা সারানোর উপায়ও রয়েছে।

কেনো হয়? ত্বকের কোনো নির্দিষ্ট অংশে নিয়মিত ঘর্ষণ বা চা’প পড়লে সেই স্থানে কড়া প’ড়ে থাকে। ত্বক নিজেকে র’ক্ষা করার জন্য ওই অংশটিকে পুরু করে ফে’লে, যাকে কড়া বলে থাকি আম’রা। বিশেষজ্ঞদের মতে, কড়া পড়া হলো ত্বকের নিজেকে র’ক্ষা করার প্রচেষ্টা। আর তখনই কড়া প’ড়ে।

এছাড়াও ত্বক ভেদ করে তীক্ষ্ণ কোনো বস্তু ঢুকে গেলে, ভুল মাপের জুতা বা স্যান্ডেল পরার কারণেও কড়া প’ড়ে। যেখানে কড়া পড়ছে সেখানে যাতে ঘষা বা চা’প না প’ড়ে সেদিকে নজর রাখতে হবে। নামাজ পড়ার কারণে পায়ে ও কপালে কড়া প’ড়ে অনেকের। সেক্ষেত্রে নরম জায়নামাজ ব্যবহার ক’রতে হবে।

জে’নে নিন কীভাবে দূ’র করবেন কড়ার জেদি দাগ-

কড়া পড়ার চিকিৎ’সা করা হয় স্যালিসাইলিক অ্যাসিডের মাধ্যমে। কড়া পড়া স্থানে স্যালিসাইলক অ্যাসিড মাখিয়ে আলতো ঘষা দিলে ধীরে ধীরে কড়া নরম হয়ে উঠে আসে। পরে সেখানে লোশন, ভ্যাসলিন, পে’ট্রোলিয়াম জে’লি কিংবা অন্য কোনো ময়েশ্চারাইজার মাখাতে হবে। কড়ার মাত্রা তীব্র হলে ক্রায়োসার্জা’রি ও লেজারের সাহায্যেও চিকিৎ’সা করা হয়।

> অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট এবং লেবুর রস দিয়েও এর সমাধান করা যায়। অ্যাসপিরিনে থাকা স্যালিসাইলিক অ্যাসিড এবং লেবুর রসের সিট্রাস উপাদান চামড়ার শক্ত অংশ সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে। এজন্য ছয়টি অ্যাসপিরিন ট্যাবলেট গুঁড়া করে আধা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পরিমাণ মতো পানিতে গু’লিয়ে তুলার সাহায্যে আক্রা’ন্ত অংশে লা’গিয়ে নিন। প’রিষ্কার কাপড় বা প্লাস্টিকের সাহায্যে ওই অংশ পেঁচিয়ে রাখু’ন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে মি’শ্রণটি আলতোভাবে পা ঘষুণির সাহায্যে ঘষে উঠিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

> আপেল সিডার ভিনেগার এবং টি ট্রি অয়েলে রয়েছে ব্যাকটেরিয়ারো’ধী এবং জী’বাণুনাশক উপাদান। যা কড়া পড়া শক্ত চামড়া নরম করে তুলতে সাহায্য করে। হালকা গরম পানিতে খানিকটা বেকিং সোডা গু’লিয়ে পা ভিজিয়ে রাখু’ন। এবার পা তুলে ভালোভাবে মুছে আপেল সিডার ভিনেগারে তুলা ভিজিয়ে শক্ত হয়ে যাওয়া চামড়ার উপর লা’গান। কয়েক মিনিট পর কয়েক ফোঁটা টি ট্রি অয়েল লা’গিয়ে নিন। টানা কয়েকদিন একই পদ্ধতি অনুসরণ করলে শক্ত হয়ে যাওয়া অংশ আলগা হয়ে উঠে আসবে।

> ভিটামিন ই ও জলপাই তেল ত্বক কোমল রাখতে যেমন উপযোগী তেমনি শক্ত হয়ে যাওয়া কড়া সারিয়ে তুলতেও কা’র্যকর। অন্যদিকে জলপাই তেলে থাকা অলিয়েক অ্যাসিড ত্বকের গ’ভীরে গিয়ে সু’স্থ করে তোলে। জলপাই তেলের স’ঙ্গে দুএকটি ভিটামিন ই ক্যাপসুলের তেল মিশিয়ে মি’শ্রণ তৈরি করে নিন। এবার কুসুম গরম পানিতে ১৫ থেকে ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে রেখে ভালোভাবে মুছে শক্ত হয়ে যাওয়া অংশে তেলের মি’শ্রণ মালিশ করুন। রাতে ঘুমানোর আগে একই প্রক্রিয়ায় চালিয়ে যান যতদিন না পুরোপুরি ভালো হয়। সম্ভব হলে পায়ে মোজা পরে ঘুমান।

Check Also

ধেয়ে আসছে বিশালাকার গ্রহাণু

একটি বিশালাকার গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, এটি পৃথিবীর …