জানালেন মহিলা নিজ মুখেই, কীভাবে হল এতবড় ক্ষতি জানলে শিউড়ে উঠবেন৷

ম’র্মা’ন্তিক , করুণ যাই বলা হোক যেন কম পড়ে যাবে৷ আইআইটি গুয়াহাটি -র প্রাক্তনী ডক্টর বিনীতা নাথের সঙ্গে যা হয়েছে তারপর আর তিনি কী করবেন তাই বুঝে উঠতে পারছেন না৷ নিয়ম করেই শিলচরের একটি পার্লারে তিনি গিয়েছিলেন৷ তিনি ইতালি-র ইউনিভার্সিটি অফ রোমে পোস্ট ডক্টরেট করছেন৷ তিনি নিজের বাড়ি ফিরে শিলচরের সারদা পার্লারে গিয়েছিলেন৷

একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য তাই একটি পার্লারে যাওয়ার যান৷ ডক্টর বিনীতা নাথ জানিয়েছেন তিনি খুব বেশি পার্লারে যান না৷ তিনি বলেছেন, ‘আমি কখনই থ্রেডিং করিনি কখনই মুখের চুল তুলিনি৷ আমি সেখানে যাই আমি বলি একটা ফেসিয়াল করব ওঁরা ডিট্যান ফেসিয়াল করাবে৷ তাঁরা বলে আমার মুখে কিছু চুল রয়েছে আমি যদি থ্রেডিং বা ওয়াক্সিং না করি তাহলে আমি যেন ব্লিচ করি৷ আমি বলি তাই করুন৷ ’

‘আমার ফেসিয়াল হওয়ার পর আমায় ব্লিচ করানো হয়, মনে হল কেউ যেন ফুটন্ত তেল ঢেলে দিল আমার মুখে৷ সঙ্গে সঙ্গেই আমার মুখে জ্বালা শুরু হয়৷ আমি যন্ত্রণায় চিৎকার করে উঠি, ওঁরা সঙ্গে সঙ্গে সেই লেয়ারটা আমার মুখ থেকে সরিয়ে নেন৷ তারপর আমার মুখে আইসব্যাগ দেওয়া হয়, কিন্তু সেটা অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল৷ ’

এরপরে তাঁর মুখে একাধিক পোড়া দাগ হয়ে যায়৷ দাগ ও ক্ষত এতটাই গভীর ছিল যে তাঁকে চিকিৎসকদের কাছে যেতে হয়৷ নাথ বলেন, ‘চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এগুলো সব পোড়ার দাগ৷ আমি ওষুধ দিচ্ছি, এখন বেশ কিছুটা সময় লাগবে এটা সারতে৷ ’

অভিযুক্ত পার্লারের যুগ্ম কর্নধার জানিয়েছেন তিনি নিজেও বিস্মিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী ৷ তিনি বলেছেন, ‘আমার বাবা শয্যাশায়ী তাই আমি বা আমার স্ত্রী সেদিন পার্লারে ছিলাম না৷ যে অনভিপ্রেত ঘটনাটি ঘটেছে তার জন্য আমরা গভীর কষ্ট পাচ্ছি ৷ কিছু একটা ভীষণ ভুল হয়েছে আমার মনে হচ্ছে খালি যদি আমি সেটা আটকাতে পারতাম৷ ’

Check Also

যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ, বসবাস নিষিদ্ধ!

বছর পনেরো আগের কথা। রোজালিনা লিয়ারপুরা তখন ছোট্ট শিশু। তিন বছর বয়স। বাবাকে সে কখনোই …