কারাগারে বাবা, মা ছেড়ে চলে যাওয়ায় শি’শুটির রাত কাটে কুকুরের সঙ্গে

ফুটপাতে কুকুরের সঙ্গে ঘুমাচ্ছে ছোট্ট একটি শি’শু। ছে’লেটির চেহারা ও পোশাক দেখে মনে হবে না সে আসলেই ফুটপাতে থাকে। তাইতো তাকে দেখে চ’মকে যান পথচারিরা; সোশ্যাল মিডিয়ায়ও ছড়িয়ে দেন সেই দৃশ্য।
ভা’রতের উত্তর প্রদেশের মুজফফর নগরের এ ঘটনা ব্যথিত করেছে অনেককেই। এ ছবি ভাই’রাল হওয়ার পর ছে’লেটির পরিচয়ও সামনে আসে।

শি’শুটির নাম অঙ্কিত। বয়স ৯ থেকে ১০ বছর। স্কুলেও ভর্তি হয়েছিল সে। কিন্তু ভাগ্য তাকে পথে নামিয়েছে। নানা ধরনের অসামাজিক কর্মকা’ণ্ডের কারণে কয়েকমাস আগে তার বাবাকে কারাদ’ণ্ড দেয় আ’দালত।

বাবা কারাগারে যাওয়ার পর তার মা পর’কী’য়ায় জড়িয়ে পড়ে। এতে ছে’লের প্রতি অবহেলা বাড়তে থাকে। ছে’লের কোনো যত্ন না নিয়ে প্রে’মিককে নিয়ে ঘুরে বেড়াতো অঙ্কিতের মা। অঙ্কিত কিছু বললেই তাকে মা’রধর করতো। শুধু মা-ই নয়, মায়ের প্রে’মিকও তাকে মা’রধর করতো। এক পর্যায়ে ছে’লেকে রেখে চলে যায় অঙ্কিতের মা।

বাবা ও মা বেঁচে থাকলেও অঙ্কিত এখন এতিম। তাই বাসা ছাড়তে হয়েছে তাকে। স্কুলে যাওয়ারও সুযোগ নেই তার। তাই বাসা-বাড়ি, বন্ধু-বান্ধব ছেড়ে সে এখন আশ্রয় নিয়েছে ফুটপাতে। এ শি’শুটি তার মা-বাবা ছাড়া অন্য কোনো আত্মীয়-স্বজনের ঠিকানা জানে না।

অঙ্কিত একটি চায়ের দোকানেও কাজ করেছে। সেখানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা খেটে যা উপার্জন করতো, তা দিয়েই কোনোভাবে ক্ষুধার জ্বালা মেটায় সে। মাঝে মধ্যে পোষা কুকুরেরও পেট ভরাতো সে। দোকান বন্ধ করার পর রাত কা’টাতে হতো ফুটপাতেই। প্রচণ্ড শীতের রাতে তার সম্বল একটা চাদর আর সঙ্গী পোষা কুকুরটিই!

সম্প্রতি ছবিটি ভাই’রাল হওয়ার পর জে’লা প্রশাসনের নজরে আসে। এরপরই পদক্ষেপ নেয় জে’লা প্রশাসক। শীর্ষ কর্মক’র্তাদের নির্দেশে জে’লা পু’লিশ এ অসহায় শি’শুকে খুঁজে নেয়। অঙ্কিত এখন শি’শু ও মহিলা কল্যাণ বিভাগের তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

Check Also

প্রথম সন্তান কন্যা হওয়ায় গৃহবধূকে তাড়িয়ে দিলো স্বামীর পরিবার

এক বছরের সংসার জীবনে ছেলে সন্তান উপহার দিতে পারেনি। তাই গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে রোকসানা খাতুন (২৩) …