কলকাতার সিরিয়ালের ‘ন্যাকামি’তে বিরক্ত দর্শকরা

বেশ কিছুদিন ধরে বাংলার জনপ্রিয় চ্যানেলের ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’ নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে। একদিকে যেমন ধারাবাহিকটির গল্প, মজা, অভিনয় নিয়ে একদল গলা ফাটিয়ে চলেছেন, অন্য পক্ষ তেমনই সিরিয়ালের নায়িকার ‘ন্যাকামি’ নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন।

মাস কয়েক হল শুরু হয়েছে এই ধারাবাহিকটি। শুরুর দিন থেকেই এটি দর্শকদের মাতিয়ে রেখেছে বলা চলে। প্রথাগত ভিলেন, চক্রান্ত, শাশুড়ি-বৌমার কূটকচালি, একাধিক বিয়ের কাহিনীকে দশ গোল দিয়ে সুখী যৌথ পরিবারের গল্প বলে চলেছে অনায়াসে। কিন্তু এখন গল্পের নায়িকা তৃণা সাহা ওরফে গুনগুন’কে নিয়ে উঠছে যত প্রশ্ন।

সিরিয়ালটিতে গুনগুন’কে বেশ শিশুসুলভ দেখানো হয়েছে। কখনো পাগলামিও করে ফেলে সে। গল্প অনুযায়ী সম্প্রতি নায়ক সৌজন্যের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে তার। বিয়েতে নাচতে নাচতে বর’কে ছাদনাতলায় নিয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে, শ্বশুরের সঙ্গে বেসুরো গান, বৌ-বরণের সময় ট্যুইস্ট ডান্স, বাড়ির বড়দের বকুনিতে তার স্বরে কান্না….সবকিছুই করতে দেখা গিয়েছে গুনগুনকে। আর এতেই ক্ষেপেছেন নেটিজেনদের একাংশ।

চ্যানেলের অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকে ‘খড়কুটো’র একটি ভিডিও ক্লিপিং পোস্ট করায় শুরু হয় ট্রোলিং। অনেকেই বলেন, এটা বাড়াবাড়ি হয়ে গিয়েছে। এই ন্যাকামি আর ভাল লাগছে না। চিত্রনাট্যকারের উচিৎ গল্পটা অন্যভাবে লেখা। অনেকে আবার বলেন, মনে হয় গুনগুনের মাথার কোনো সমস্যা রয়েছে। সে মানসিকভাবে সুস্থ নয়।

তবে এ সব ট্রোলিংকে হেলায় হারিয়ে সবচেয়ে বেশি টিআরপি পেয়েছে ‘খড়কুটো’ন। ফলে বাংলা বিনোদন জগতে এক নম্বর স্থান দখল করে নিয়েছে এই বাংলা চ্যানেলটি।

Check Also

ইশ! আজ যদি মা বেঁচে থাকতেন: দীঘি

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা দীঘি। আলোচনা- সমালোচনা নিয়েই তার ক্যারিয়ার। বরাবরই তিনি আলোচনায় থাকেন। ফের …