এবার ভারতীয় মিডিয়ায় ভাসানচর নিয়ে নেতিবাচক রিপোর্ট

নোয়াখালী জেলার ভাসানচরে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য দৃষ্টিনন্দন বাসস্থান তৈরি করেছে বাংলাদেশের সরকার। সেখানে এক লাখের বেশি রোহিঙ্গা থাকার যাবতীয় সুব্যবস্থা রয়েছে। রয়েছে সাইক্লোন শেল্টারও। তারপরও ভারতের একটি গণমাধ্যম ভাসানচর নিয়ে নেতিবাচক রিপোর্ট তৈরি করেছে।

২৪ ঘণ্টার হিন্দি ভাষার নিউজটুয়েন্টিফোর নামের ওই টিভি চ্যানেল গত ৭ ডিসেম্বর ভাসানচর নিয়ে একটি রিপোর্ট তৈরি করে। সেখানে বিভিন্ন সিনেমার গ্রাফিক্স ব্যবহার করে ভাসানচর নিয়ে ব্যাপক নেতিবাচক ওই রিপোর্ট করা হয়।

সেখানে বলা হয়, ঝড়, বৃষ্টিপাত ও বন্যায় এই ভাসানচর হাজার হাজার রোহিঙ্গার জন্য ‘কবরে’ পরিণত হতে পারে। ডাকাতদের হানা দেয়ার ঝুঁকি রয়েছে বলেও ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। টিভি চ্যানেলটির একজন রিপোর্টারকে বলতে শোনা যায়, ‘মিয়ানমারে সহিংসতা থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিল এই রোহিঙ্গারা। এখন তাদের জীবন বাঁচানোর বদলে বাংলাদেশ সরকার তাদের বিপদে ফেলে দিয়েছে।’

যদিও অনেক চড়াই উতরাই পেরিয়ে গত শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) প্রথম ধাপে নারী-পুরুষ, শিশুসহ ১৬৪২ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তর করা হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এই দলটির মধ্যে ৮১০ শিশু, ৩৬৮ পুরুষ ও ৪৬৪ জন নারী রয়েছে। তবে প্রায় দুই দশক আগে জেগে ওঠা এই দ্বীপে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরের কার্যক্রম ভাসানচর পরিদর্শন করে ২২টি এনজিওর প্রতিনিধি দল।

ভারতীয় গণমাধ্যমটি নেতিবাচক রিপোর্ট করলেও ভাসানচরে থাকার জন্য মানসম্মত নতুন পাকা ঘর এবং বসবাসের মতো স্বাস্থ্যসম্মত এলাকা পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন রোহিঙ্গারা।

Check Also

মমতার বাড়ি নেই, গয়নাও ১ ভরির কম

ভা’রতের রাজনীতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দু’র্নী’তিতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে যখন দেশের অনেক নেতা জর্জ’রিত তখন এক ব্যতিক্রমী …