এক মাসের মলির বয়স ২৮ বছর!

ছবিতে বাচ্চাটির নাম মলি গিভসন। তার বয়স মাত্র এক মাস। তবে আসল ঘটনাটি শুনলে অনেকেই বলবেন নাহ তার বয়স ২৮ বছর হবে। অনেকে আবার এক মাস ও ২৮ বছর নিয়ে তর্কেও জড়িয়ে পড়তে পারেন।

এক মাসের বাচ্চার বয়স কিভাবে ২৮ বছর হয় এ নিয়ে হয়তো অনেকেই হিসাব কষতে বসে গিয়েছেন। এখন জানা যাক আসল কারণ। বাচ্চাটি যে ভ্রুণ থেকে জন্মগ্রহণ করেছে সেটি সংরক্ষণ করা হয়েছিল ২৮ বছর আগে।

১৯৯২ সালের অক্টোবর মাস, তখন থেকেই কন্যাশিশুটিকে ভ্রূণ অবস্থাতেই জমাট রাখা হয়েছিল। যেটি হিসাব করলে দাঁড়ায় দীর্ঘ ২৮ বছর। অবশেষে চলতি ফেব্রুয়ারিতে ২৯ বছর বয়সী মার্কিন তরুণী টিনা গিবসনের গর্ভে ভ্রুণটি প্রতিস্থাপন করা হয়।

গত ২৬ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি অঙ্গরাজ্যে শিশুটি জন্ম নিয়েই ইতিহাস তৈরি করেছে। তিন বছর আগে তার সহোদরা এমা গিবসনের জন্ম হয়েছিল ২৪ বছরের পুরনো ভ্রূণ থেকে। এবার সেই রেকর্ড ভাঙল মলি।

তবে এত পুরনো ভ্রূণ এই প্রথম সফলভাবে মাতৃদেহে বেড়ে উঠে জন্মলাভ করার মতো বিজ্ঞানের বিস্ময়কর বিষয় নিয়ে তেমন কোনো মাথা ব্যথা নেই মলির মা টিনা গিবসন ও বাবা বেন গিবসনের। তারা নতুন অতিথিকে পেয়েই খুব খুশি।

টেনেসি অঙ্গরাজ্যের নক্সভিল শহরের ন্যাশনাল এমব্রয় ডোনেশন সেন্টারে ১৯৯২ সালের অক্টোবরে মলি গিবসনের ভ্রূণ সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। গত ফেব্রুয়ারিতে ভ্রূণটি টিনার গর্ভে প্রতিস্থাপন করা হয়।

টিনা তিন বছর আগে ঠিক একই পদ্ধতিতে মা হয়েছিলেন। ২০১৭ সালে নভেম্বর মাসে তার গর্ভে জন্ম নেয় এমা গিবসন। ওই ভ্রূণ ২৪ বছর সংরক্ষণ করে রাখার পর ওই বছর প্রতিস্থাপন করা হয় টিনা গিবসনের গর্ভে।

সুত্র: বিবিসি

Check Also

মমতার বাড়ি নেই, গয়নাও ১ ভরির কম

ভা’রতের রাজনীতিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দু’র্নী’তিতে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে যখন দেশের অনেক নেতা জর্জ’রিত তখন এক ব্যতিক্রমী …