ইতিহাস সাক্ষী, এটাই শেষ মহামারি নয়

মহামারি করোনায় পুরো বিশ্ব অচল হয়ে পড়েছে। আবার ইউরোপে ধরা পড়েছে করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন। করোনাই বিশ্বের শেষ মহামারি নয়। পরবর্তী মহামারি থেকে বাঁচতে আমাদের করোনা থেকে শিক্ষা নিতে হবে। রোববার (২৭ ডিসেম্বর) বিশ্বের প্রথম আন্তর্জাতিক মহামারি প্রস্তুতি দিবস উপলক্ষে দেওয়া ভিডিও বার্তায় এই আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রেয়াসুস।

এক ভিডিও বার্তায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস বলছেন, ‘ইতিহাস সাক্ষী, এটাই শেষ মহামারি নয়। অতিমারী আমাদের জীবনের অঙ্গ। এই মহামারি মানুষ, পশু এবং পরিবেশের স্বাস্থ্যের মধ্যে গভীর সম্পর্কের কথা আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে। মানুষের স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য পরিবেশ, পশুপাখি সবকিছুর উপর যে বিপদ নেমে আসছে সেটা আগে প্রতিরোধ করতে হবে।’

গোটা বিশ্ব মহামারি রুখতে যে পন্থা অবলম্বন করছে, তাতে সন্তুষ্ট নন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রধান। তিনি বলছেন, ‘যখনই কোন মহামারি আঘাত হানে, আমরা কোটি কোটি অর্থব্যয় করি। তারপর থেমে যায়। ওই মহামারির কথা ভুলে যায় এবং এরপর যে মহামারি আসছে, তার সঙ্গে লড়াই করার প্রস্তুতি নিই না। এটা বিপজ্জনক দুরদৃষ্টিহীনতা। এবং কেন এটা হয়, বোঝা কঠিন।’ এবার সময় এসেছে এই পরিস্থিতি বদলানোর। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিশ্বের সব দেশের কাছে অনুরোধ করে বলেছেন, দয়া করে স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় আরও বেশি বেশি করে বিনিয়োগ করুন। বিশেষ করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যে। যাতে আমাদের সন্তানরা এবং তাঁদের সন্তানরা, মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করার শক্তি জোগাড় করতে পারে।

Check Also

যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ, বসবাস নিষিদ্ধ!

বছর পনেরো আগের কথা। রোজালিনা লিয়ারপুরা তখন ছোট্ট শিশু। তিন বছর বয়স। বাবাকে সে কখনোই …