আক্কেল দাঁত নিয়ে কিছু কথা

বয়সটা যখন ১৮ থেকে ২৫, এসময় একটি কমন সমস্যা হচ্ছে মুখের ভেতরের শেষ দাঁতটার পরের জায়গাটাতে ব্যথা। এর কারণ হল আক্কেল দাঁত বা wisdom tooth, যাকে আমরা দন্ত চিকিৎসকরা থার্ড মোলার বলে সম্বোধন করি। এ বয়সটা আক্কেল দাঁত উঠার সময়। কিন্তু এ আক্কেল দাঁত হচ্ছে মহা বিপ্লবী !

তার সোজা পথে চলতে মোটেই ইচ্ছে করে না। তাই সে হরহামেশাই বাঁকা হয়ে উঠতে চেষ্টা করে। তার সামনের দাঁতটাকে (সেকেন্ড মোলার) ইচ্ছেমত ধাক্কাধাক্কি করে। এ ধাক্কাধাক্কির ফলে বেচারা সেকেন্ড মোলারে ক্যারিজ বা দন্তক্ষয় শুরু হয়ে যায়। এমনকি মাঝে মাঝে এ মহান আক্কেল দাঁতের (ব্যাক্কেল বলাই শ্রেয়) উঠতেই ইচ্ছে করে না। হেলে থাকে কিংবা নিচের হাড়ের মধ্যে শুয়ে ঘুমিয়ে থাকে (রাজা বাদশা প্রকৃতির কি না)! এ অবস্থাকে আমরা ইমপ্যাক্টেড থার্ড মোলার বলি। এসব ক্ষেত্রে এ জায়গাটাতে তীব্র ব্যথা হয়।

এ তো গেল সমস্যার কথা। এবার এর সমাধানে কি করা যায় তা নিয়ে কিছু বলি। প্রথমত স্বাভাবিকভাবে দাঁত উঠার সময় একটু ব্যথা হতে পারে। গরম পানির সেক নিলে এতে আমার অনুভব হয়। ব্যথা বেশি হলে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যথার ঔষধ সেবন করা যেতে পারে। দাঁত ঠিকঠাক মতো উঠে গেলে ব্যথা ঠিক হয়ে যায়।

কিন্তু ইমপ্যাক্টেড হলে এ ব্যথা দীর্ঘস্থায়ী হয়। তখন অবশ্যই দন্ত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। এক্ষেত্রে কোন ট্রিটমেন্ট লাগবে তা সাধারণত একটা এক্সরে করে নির্ধারণ করা হয়। সার্জিক্যাল ট্রিটমেন্টই প্রধানত এক্ষেত্রে সমাধান।

ডা. ফারহানা নাজমুন যুথি
বিডিএস(ঢাকা ডেন্টাল কলেজ)
ওরাল এন্ড ডেন্টাল সার্জন
সেন্ট্রাল মুক্তা হসপিটাল, টাংগাইল।

Check Also

লক্ষণ দেখে বুঝে নিন শরীর আপনাকে যে ১০টি খারাপ ইঙ্গিত দিচ্ছে

দেহ মাঝে মাঝে কিছু ছোটো ছোটো লক্ষণ এর মাধ্যমে দেহাভ্যন্তরের সমস্যার ইঙ্গিত দিতে পারে। যেমন …