অষ্টম শ্রেণির ছাত্রকে নিয়ে উধাও স্কুলশিক্ষিকা

গত এক বছর ধরে চলছিলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্র এবং এক শিক্ষিকার প্রে’ম। এমনকি লুকায়িতোও ছিলো না তাদের স’ম্পর্কের কথা। যে কারণে শিক্ষাঙ্গনে অসম বয়সী এই প্রে’মে অস্বস্তিতে পড়েছিলো স্কুল কর্তৃপক্ষ।

২৬ বছর বয়সী অনিতা নামের সেই শিক্ষিকাকে ডেকে হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়েছিলো। কিন্তু কোনো নিষেধাজ্ঞাই থামাতে পারেনি সেই প্রে’মকে। পরিবার এবং স্কুল কর্তৃপক্ষের বাধা পেয়ে তাই ১৪ বছরের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ‘প্রে’মিক’কে সঙ্গে নিয়ে পালিয়েছেন শিক্ষিকা অনিতা।

ঘটনাটি ঘটেছে ভা’রতের গুজরাটের গান্ধীনগরে। এ ঘটনায় ওই স্কুলশিক্ষিকার বি’রুদ্ধে গান্ধীনগর থা’নায় এফআইআর দায়ের করেছেন নি’খোঁজ ছাত্রের বাবা।এফআইআরে জানিয়েছেন, তার ১৪ বছরের ছে’লেকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে গেছে ওই শিক্ষিকা। গত শুক্রবার বিকেল ৪টা থেকে খোঁজ মিলছে না তার ছে’লের।

এ বিষয়ে পু’লিশের এক কর্মক’র্তা জানিয়েছেন, বছর খানেক ধরেই নি’খোঁজ ওই ছাত্রের সঙ্গে একটু বেশিই ঘনিষ্ঠ ছিলেন অ’ভিযু’ক্ত শিক্ষিকা। এ কারণে সম্প্রতি স্কুল কর্তৃপক্ষও তাদের ভর্ৎসনা করে।

ছে’লেটির বাবার অ’ভিযোগ, ‘এই স’ম্পর্ক যেহেতু মেনে নেয়া হয়নি, তাই তারা বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে’।কি’শোর ছাত্রকে নিয়ে শিক্ষিকার পালানোর ঘটনা বিরল হওয়ায় অ’বাক স্কুলের শিক্ষক মহল থেকে ছাত্রছা’ত্রী ও পরিজনরাও। অ’ভিযু’ক্ত শিক্ষিকা কলোল শহরের দরবারি চাওয়ালের বাসিন্দা।

কি’শোরের বাবার দাবি, সন্ধ্যা সাতটার দিকে বাড়ি ফিরে তিনি দেখেন তার ছে’লে বাড়িতে নেই। পাড়া ও আত্মীয়-স্বজনের কাছে ফোন করেও খোঁজ মেলেনি। ওই শিক্ষিকাও তার বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যান।

ইন্সপেক্টর কে কে দেশাই জানিয়েছেন, ‘দু’জনের কেউই মোবাইল ফোন নিয়ে যাননি। তাই তাদের খুঁজে বের করতে সময় লাগবে।’

Check Also

যে গ্রামে পুরুষের প্রবেশ, বসবাস নিষিদ্ধ!

বছর পনেরো আগের কথা। রোজালিনা লিয়ারপুরা তখন ছোট্ট শিশু। তিন বছর বয়স। বাবাকে সে কখনোই …