অ’ভিনেত্রী আশার মৃ’ত্যু: মোটরসাইকেল চালক কারাগারে

রাজধানীর মিরপুরের টেকনিক্যাল মোড়ে ট্রাকের ধাক্কায় অ’ভিনেত্রী আয়েশা আক্তার আশার মৃ’ত্যুর ঘটনায় করা মা’মলায় মোটরসাইকেল চালক শামীম আহমেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আ’দালত।

বুধবার (৬ জানুয়ারি) শামীমকে ঢাকা মহানগর হাকিম আ’দালতে হাজির করে পু’লিশ। এ সময় মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা দারুস সালাম থা’নার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহান আহমেদ মা’মলার ত’দন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আ’ট’ক রাখার আবেদন করেন। অন্যদিকে জামিন চেয়ে আবেদন করেন শামীমের আইনজীবী।

উভ’য়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিকে এ মা’মলার এজাহার আ’দালতে পৌঁছলে ঢাকা মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া ত’দন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেন।

মা’মলার অ’ভিযোগ থেকে জানা যায়, ছয়-সাত বছর ধরে আ’সামি শামীম আহমেদের সঙ্গে আশার পরিচয় ছিল। সেই সুবাদে তাদের মধ্যে আত্মীক স’ম্পর্কের সৃষ্টি হয়। প্রায়ই আশাদের বাসায় যাতায়াত করতেন তিনি। আশার পরিবারও তাকে বিশ্বা’স ও স্নেহ করত। মাঝে মাঝে অফিস এবং অ’ভিনয়ের কাজে আসা-যাওয়ায় সহযোগিতা করতেন শামীম।

মা’মলার অ’ভিযোগে আরও বলা হয়, গত ৪ জানুয়ারি রাত ১১টার দিকে বনানী অফিস থেকে বের হওয়ার সময় আশা তার বাবাকে ফোন করে বলেন, ‘আমি কিছুক্ষণের মধ্যে বাসায় আসছি।’

এরপর রাত পৌনে ১১টার দিকে পুনরায় ফোন করে তিনি বলেন, ‘বাড়ির কাজের ব্যাপারে ইঞ্জিনিয়ারের সঙ্গে কথা হয়েছে। কাজ নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। আমি শামীম ভাইয়ের সঙ্গে চলে আসব।’

‘এ সময় শামীম মোবাইল ফোনে বলেন, আপনার মেয়ে যেভাবে বলে সেভাবে কাজ করেন তাহলে ভালো হবে। পরে রাত পৌনে ২টার দিকে শামীম ফোন করে জানান, আশা আর নেই। টেকনিক্যাল মোড়ে একটি অ’জ্ঞাত ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে মৃ’ত্যুবরণ করেছে।’

মা’মলার এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, শামীম বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে দুই ট্রাকের মাঝখান দিয়ে দ্রুতগতিতে যাওয়ার সময় সামনের ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে আশা মোটরসাইকেলের পেছন থেকে ছিট’কে পড়ে যান। এরপর পেছন থেকে দ্রুতগতিতে আসা একটি অ’জ্ঞাত ট্রাক তাকে চাপা দিলে মা’থায় জ’খম হয়ে ঘটনাস্থলেই আশা মা’রা যান।

এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার আয়শা আক্তার আশার বাবা মো. আবু কালাম বাদী হয়ে দারুস সালাম থা’নায় একটি মা’মলা করেন। ওইদিনই শামীমকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

উল্লেখ্য, আয়শা আক্তার আশা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ ইউনিভা’র্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির (বিইউবিটি) আইন বিভাগের ষষ্ঠ সেমিস্টারে পড়ছিলেন।

Check Also

ইশ! আজ যদি মা বেঁচে থাকতেন: দীঘি

বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা দীঘি। আলোচনা- সমালোচনা নিয়েই তার ক্যারিয়ার। বরাবরই তিনি আলোচনায় থাকেন। ফের …